আব্দুর রাজ্জাক ছাদকৃষিতে যেভাবে সফল হলেন

বাংলা খবর নিউজ ডেস্ক :: ইট-কাঠের শহর থেকে দ্রুতই হারিয়ে যাচ্ছে সবুজ। কিন্তু মানুষ তার শেকড় সহজে ভুলতে পারে না। সবুজে ভরা গ্রামবাংলায় বেড়ে ওঠা নাগরিক সমাজের একটা অংশ এখনো সবুজ ধরে রাখতে চান তাদের আবাসস্থলে। শৌখিন মানুষরা তাদের ঘর-বাড়িতে সবুজকে ধরে রাখার জন্য একান্ত নিজস্ব ভাবনা আর প্রচেষ্টায় তৈরি করছেন ছাদ বাগান।

সময়ের সাথে সাথে এ বাগান এখন আর শৌখিনতায় আটকে নেই। নিরাপদ সবজি দিয়ে পারিবারিক পুষ্টি চাহিদাপূরণ, পারিবারিক বিনোদন এবং অবসর কাটানোর এক মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে ছাদ বাগানগুলো। বাংলাদেশের শহুরে কৃষি ব্যবস্থার শৌখিন পদযাত্রা সময়ের বিবর্তনে এক সামাজিক আন্দোলনে রূপ নিতে যাচ্ছে।
রাজধানীসহ সারাদেশে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ছাদকৃষি। তেমনই বগুড়ার সোনাতলার ব্যবসায়ী মো. আব্দুর রাজ্জাক নিজের বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ছাদে গড়ে তুলেছেন শখের ছাদকৃষি। মূলত প্রকৃতি প্রেম থেকে তিনি গড়ে তোলেন এ ছাদ বাগান।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ছাদ বাগান করার ইচ্ছা আমার ছোটবেলা থেকেই। কিন্তু সময়ের অভাবে করতে পারিনি। ব্যবসায় এখন একটু মন্দা চলছে। তাই ছাদের উপর কৃষিকাজ করার ঝুঁকি নিয়েছি। আমার ছাদ বাগানে ওষুধি গাছ থেকে শুরু করে অনেক প্রকার গাছ আছে। আমার ছোট পরিবারের চাহিদা মেটে এ ছাদ বাগান থেকে।’

তিনি বলেন, ‘ফরমালিনমুক্ত শাক-সবজি খেতে পারি। বাজার থেকে কিনতে হয় না। যেমন- আমি মরিচ উঠাই প্রতিদিন। এ মরিচ দিয়েই আমার সংসারে মরিচের চাহিদা মেটে। আমার ছাদ কৃষিতে কোনো সমস্যা হলে কৃষি কর্মকর্তাদের ফোন করলে চলে আসেন। তারা বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে সহায়তা করেন।’

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘গোবিন্দগঞ্জে আমার পাঁচ একর জমি নেওয়া আছে। সেখানে আমি মাল্টা, কমলা ও ড্রাগন ফল চাষের পরিকল্পনা করেছি। খুব শিগগিরই কাজ শুরু করবো।’
ছাদ কৃষিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন স্থানীয় কৃষি বিভাগ। তথ্য দিয়ে সার্বিক সহোযোগিতা করে যাচ্ছেন তারা। সোনাতলার কৃষি অফিসার মাসুদ আহম্মেদ বলেন, ‘সোনাতলা পৌরসভা এলাকায় বর্তমানে এগারোটি ছাদকৃষি আছে। তাদের যখন সমস্যা হচ্ছে, আমাদের জানাচ্ছেন। আমরা সহায়তা করছি।’
তিনি বলেন, ‘আমি ছাদকৃষির মালিকদের সাথে যোগাযোগ করেছি। তাদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়েছি। বিশেষ করে শৌখিন গাছগুলো লাগাতে বেশি উদ্বুদ্ধ করেছি। আমি বলতে চাই, বর্তমানে বাংলাদেশে পাকা বাড়ি-ঘর বেশি হচ্ছে। সবাই ছাদে কৃষিকাজ করুন। ছাদের সৌন্দর্য বৃদ্ধিসহ সুন্দর সময় কাটানো ও পুষ্টিকর খাবারের জন্য ছাদকৃষি প্রয়োজন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা, ‘দেশের প্রতি ইঞ্চি জায়গা কাজে লাগান’। সেই ধারাবাহিকতায় সবাইকে সবুজ বনায়নে দৃষ্টি দেওয়া উচিত। তাহলেই সবুজ বনায়নে বিপ্লব ঘটানো সম্ভব।

Related posts

Leave a Comment