বাঙালিরা পদ্মার ইলিশ খাবে না, এটা কি হয়

পদ্মার ইলিশের প্রতি কলকাতার বাঙালিদের টান দীর্ঘকালের। তাদের কাছে বাংলাদেশের ইলিশ মানে পদ্মার ইলিশ। সেই ইলিশ বহু যুগ ধরে রসনা তৃপ্তি করে আসছে ভোজনপ্রিয় কলকাতার বাঙালিদের। কিন্তু ২০১২ সালের জুলাই মাস থেকে বাংলাদেশ থেকে পশ্চিমবঙ্গে বন্ধ হয়ে যায় এই ইলিশ রপ্তানি। তাই সুযোগ পেয়ে বাংলাদেশের কাছে আবারও ইলিশের দাবি জানালেন তাঁরা।

বুধবার সন্ধ্যায় কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশন বাংলাদেশের শাসক দল আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের সম্মানে এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন কলকাতার বিশিষ্টজনেরা। সেখানে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে কথা বলেন কলকাতার হিলসা ফিশ ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অতুল দাস এবং সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আনোয়ার মকসুদ।

প্রথম আলোকে অতুল দাস বলেন, ওই অনুষ্ঠানে তাঁরা মন্ত্রীর কাছে ইলিশ মাছ রপ্তানির প্রসঙ্গটি তোলেন। মন্ত্রীকে জানানো হয়, ২০১২ সাল থেকে বাংলাদেশ থেকে পশ্চিমবঙ্গে ইলিশ রপ্তানি বন্ধ রয়েছে। মন্ত্রী শুনে বলেন, ‘বাঙালিরা পদ্মার মাছ খাবে না, এটা কি হয়?’ এরপর মন্ত্রী বলেন, ‘আমি আপনাদের পদ্মার ইলিশের প্রতি আগ্রহের কথা শুনলাম। বিষয়টি নিয়ে আমি কথা বলব আমাদের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। আশা করি, এর সুফল পেতে পারেন আপনারা।’

বাংলাদেশ থেকে যাতে পশ্চিমবঙ্গে ইলিশ আসে, সেই লক্ষ্যে কলকাতার ইলিশ আমদানিকারকেরা দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসছে ভারতের কেন্দ্রীয় এবং পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের কাছে। কলকাতার হিলসা ফিশ ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অতুল দাস আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা এই দাবি নিয়ে ইতিমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের মৎস্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে মুখ্যমন্ত্রী, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী, এমনকি ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কাছেও আবেদন করেছেন। যাতে করে কেন্দ্রীয় সরকার ইলিশ রপ্তানি নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে কথা বলেন।

আরও সংবাদ
বিষয়:

Related posts

Leave a Comment