হরিণ শিকারের অভিযোগে জাপা’র কেন্দ্রীয় নেতার বিরুদ্ধে মামলা

 


অবশেষে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সাত্তার মোড়লের নামে হরিণ শিকারের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। এছাড়াও তার গ্রেফতারের দাবিতে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত।

মঙ্গলবার (১০ জুলাই) সজাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা সাত্তার মোড়লের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে শ্যামনগর থানায়। বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন তারই সহযোগী এসআই লিটন। যদিও ওই এসআই লিটন বনবিভাগের ও কোস্টগার্ড কর্মকর্তাদের সাথে সাত্তার মোড়লকে তাদের ইনফরমার বলে জানিয়েছিলেন। আজ সকালে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে তার গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মানবন্ধনে বক্তরা সুন্দরবনের জীব বৈচিত্র ধ্বংসকারী সাত্তার মোড়লের গ্রেফতার ওদৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। একই সাথে তার সহযোগি ১৬ জনকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে গ্রেফতারের দাবি করা হয়।

বক্তারা আরো বলেন, ‘অনেক বড় বড় সরকারি কর্মকর্তা ও আমলাদের ফ্রিজে সাত্তার মোড়লের দেয়া হরিণের মাংস ফুরায় না। অনেক সরকারি কর্মকর্তা সাত্তার মোড়লের নেতৃত্বে হরিণ শিকার উপভোগ করতে সুন্দরবনে যায়। গতকালের হরিণ শিকারের ঘটনায় যে তিন জন চোরা শিকারি ছিল তাদের আসামী করা হয়নি । ওই হরিণ শিকারি সহ যারা জড়িত তাদের গ্রেফতারে সাত দিনের আলটিমেটাম দেয়া হয়েছে মানববন্ধনে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এড. আবুল কালাম আজাদ, সাতক্ষীরা সিটি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সুভাষ সরকার, সাবেক ছাত্র নেতা হাফিজুর রহমান মাসুম, জাসদ নেতা ওবাইদুস সুলতান বাবলু প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার সুন্দরবনে ৩টি হরিণ ও ৩টি অস্ত্র সহ ২ জনকে গ্রেফতার করে শ্যামনগর থানা পুলিশ । এ ঘটনার নায়ক সাত্তার মোড়লকে ছেড়ে দেয়ায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে সাতক্ষীরার সচেতন মহলে ব্যাপক সমালোচনা হয়।

Related posts

Leave a Comment